One Stop Digital Education Portal
নিউটনের গতিসূত্রসমূহ
Price: 50 Post By: Toufiq Mahmud সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: 12 Tuesday 2019

ব্যবহারিকভাবে বলের কোড শুরু করার পূর্বে, বলের ধারণাসংক্রান্ত বিষয়গুলো সম্পর্কে জানি। “ভেক্টর” এর মতই “বল” এরও বিভিন্ন অর্থ আছে। এটি শক্তির প্রবলতাকে নির্দেশ করে, যেমন “সে বলিষ্ঠভাবে পাথরটি রাখলো” অথবা “সে বলিষ্ঠভাবে কথাটি বলল।” আমরা সার আইজ্যাক নিউটনের গতির সূত্র থেকে বল এর সংজ্ঞা পাই:
বল হল একটি ভেক্টর রাশি যা ভর (mass) বিশিষ্ট কোন বস্তুর ত্বরণ সৃষ্টি করে।
সুখবর হল আমরা সংজ্ঞার প্রথম অংশটি বুঝি: বল হল একটি ভেক্টর রাশি। ভালো হয়েছে যে, আমরা একটি সম্পূর্ণ অনুশীলনে ভেক্টর সম্পর্কেই জেনেছি এবং PVector নিয়ে কাজ করা শিখেছি!
এখন, বল বিষয়ক নিউটনের গতির সূত্রগুলো দেখি।
নিউটনের প্রথম সূত্র
নিউটনের প্রথম সূত্রটি হল:
স্থির বস্তু স্থিরই থাকবে এবং গতিশীল বস্তু গতিশীলই থাকবে।
কিন্তু, এখানে বলের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় বাদ পরেছে। আমরা সূত্রটিকে এভাবে লিখতে পারি:
বাহ্যিক কোন বল প্রয়োগ না করলে স্থির বস্তু স্থিরই থাকবে এবং গতিশীল বস্তু সুষম দ্রুতিতে সরল পথে অগ্রসর হবে।
নিউটনের গতির সূত্রের আগে, গতির প্রাচীন সূত্র—অ্যারিস্টেটলের সূত্র—দুই হাজার বছরের পুরনো ছিল। এই সূত্র মতে, কোন গতিশীল বস্তুর গতি বজায় রাখার জন্য বল আবশ্যক। যদি গতিশীল বস্তুকে টানা বা ঠেলা না হয়, তাহলে বস্তুর গতি হ্রাস পাবে অথবা থেমে যাবে। এটা কি সঠিক?

অবশ্যই এটা সঠিক নয়। বাহ্যিক বল অনুপস্থিত থাকলে, কোন গতিশীল বস্তুর গতিসঞ্চারের জন্য কোন প্রকার বলের প্রয়োজন হয় না। একটি বস্তুকে (যেমন একটি বল) আকাশে ছুঁড়ে মারলে, পৃথিবীর বায়ুমন্ডলের চাপের (একটি বল) কারণে বস্তুটির গতি ধীর হয়ে যায়। বাহ্যিক বল ব্যতিত একটি বস্তুর বেগ সর্বদা সমান থাকে অথবা বস্তুর উপর একাধিক বল ক্রিয়া করলে যদি লব্ধি বল শূন্য হয় তাহলেও এরূপ ঘটবে। যেমন: মোট বলের যোগফল শূন্য। এটাকে সাম্যাবস্থা (equilibrium) বলা হয়। যখন পড়ন্ত বলের (ball) উপর ক্রিয়াশীল বায়ুর চাপ এবং মহাকর্ষ বল (force) সমান হবে তখন এটি প্রান্তিক বেগে পৌঁছবে (যা ধ্রুবক থাকবে)।